গাইবান্ধায় কৃষকের ঘরে আমনের মহোৎসব

মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২ ১৯:২৪


অভিজিৎ কুমার দাস,গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
 
গাইবান্ধা জেলায় চলছে কৃষকের আমন ধান কেটে ঘরে তোলার মহোৎসব। এই নতুন ধানকে ঘিরে ঘরে ঘরে চলছে নবান্ন উৎসব। আমনের বাম্পার ফলন ও দাম ভালো দাম পেয়ে খুশি কৃষক। হেমন্তের শিশিরে ভিজে থাকা ধান কাটতে ভোর থেকে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। চারদিকে সোনালি ধান নিয়ে হইচই । ধান কাটার পর বাড়িতে  নিয়ে যাচ্ছে মাড়াই করতে। গাইবান্ধায় কৃষকের ঘরে চলছে আমন উৎসব। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাড়ির উঠানে ধান নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন কিষানিরা। গাইবান্ধার ঐতিহ্য অনুযায়ী আমন নিয়ে পিঠাপুলির হিড়িক পড়ে গেছে। বাড়িতে বেড়াতে আসছে অতিথিরা। পিঠাপুলি ছাড়াও রান্না হচ্ছে খিচুড়ি। কৃষি পরিবারগুলো এখন এক বিশেষ সময় পার করছে। চারদিকে কৃষি পরিবারগুলোতে চলছে আনন্দের ঢেউ। উন্নতমানের বীজ, পরিমিত সার ব্যবহার এবং আবহাওয়া অনুকূল থাকায় এবার ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষক দামও পাচ্ছে আশানুরূপ। এ বছর আমনের মণ প্রতি উৎপাদনে খরচ হয়েছে ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা। আর কাঁচা ধান বিক্রি হচ্ছে হাজার টাকায়। গাইবান্ধা জেলার কৃষকদের সাথে কথা বললে তারা জানান, এ বছর জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময়ে তাদের জমিতে রোপা আমন ধানের আবাদ করেন।  এখন পুরোদমে ধান কেটে বাড়িতে নিয়ে ধান মাড়াই করার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। কৃষক মোস্তফা জানান, ভালো ফসল উৎপাদনের স্বপ্ন নিয়েই তারা এ বছর জমিতে রোপা আমন ধানের আবাদ করেন। বর্ষার সময়ে নিয়মিত বৃষ্টি হওয়াতে  তাদের জমিতে কোনো প্রকার পানি দিতে হয়নি। বর্তমানে জমিগুলোতে হৃষ্টপুষ্ট ধান দেখে কৃষকদের মুখে হাঁসি ফুটেছে। অধিকাংশ কৃষকই জমি থেকে ধান কেটে ঘরে তুলেছেন। গাইবান্ধা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা  মো. জিয়াউর রহমান বলেন, এ বছর গাইবান্ধার সাত উপজেলায় ১ লাখ ২৯ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল। তবে আবাদ হয়েছে ১ লাখ ২৯ হাজার ৬৯৯ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে আমন ধান উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৫ লাখ ৪৭ হাজার ৩১০ মেট্রিক টন। দিন দিন এখানে রোপা আমন আবাদে কৃষকরা আগ্রহী হয়ে উঠছেন। ফলন ভালো পাওয়াতে কৃষকরা প্রতি বছর বেশি বেশি পরিমাণ জমিতে রোপা আমন ধান আবাদ করছেন। গাইবান্ধা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক জানান, গাইবান্ধার কৃষক এবার ব্যাপকভাবে আমন ধানের আবাদ করে সফল হয়েছেন। কৃষকরা ইতোমধ্যে অধিকাংশ জমির ধান ঘরে তুলতে সক্ষম হয়েছেন। উৎপাদনের হারও ভালো। কৃষি বিভাগের তদারকি ও কৃষকের নিবিড় পরিচর্যা ও পরিমিত সার ব্যবহারের সুফল পাচ্ছে কৃষক। ধানসহ যে কোনো ফসল উৎপাদনে কৃষকদের গাইবান্ধা জেলা কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে সব ধরনের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, গাইবান্ধায় আমন মৌসুম লক্ষ্যমাত্রা আশানুরূপ। এছাড়া রবি মৌসুমে কৃষকদের প্রণোদনা দেয়াসহ সার্বিক পরামর্শ অব্যাহত রয়েছে।
 

এমএসি/আরএইচ

সর্বশেষ

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় ফসল রক্ষা বাঁধ পরিদর্শন করেন-এমপি রতন

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় ফসল রক্ষা বাঁধ পরিদর্শন করেন-এমপি রতন

বেনাপোলে ফেনসিডিল সহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক

বেনাপোলে ফেনসিডিল সহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক

ভূঞাপুরে ষষ্ঠ উপজেলা স্কাউট সমাবেশ ও চতুর্থ কাব ক্যাম্পুরী অনুষ্ঠিত 

ভূঞাপুরে ষষ্ঠ উপজেলা স্কাউট সমাবেশ ও চতুর্থ কাব ক্যাম্পুরী অনুষ্ঠিত 

চিরিরবন্দরে স্কাউটিং বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কোর্স অনুষ্ঠিত

চিরিরবন্দরে স্কাউটিং বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কোর্স অনুষ্ঠিত

সাদা প্রাইভেটকার দেখলেই মায়ের প্রতিশোধ নিতে ছুটে কুকুর

সাদা প্রাইভেটকার দেখলেই মায়ের প্রতিশোধ নিতে ছুটে কুকুর

ঘুম থেকে উঠে মেয়ে দেখলেন গাছে ঝুলছে বাবার লাশ

ঘুম থেকে উঠে মেয়ে দেখলেন গাছে ঝুলছে বাবার লাশ

কুলাউড়ায় আবারও ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু

কুলাউড়ায় আবারও ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত যুবকের মৃত্যু

শিবপুরে দাখিল মাদ্রাসার ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত 

শিবপুরে দাখিল মাদ্রাসার ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত 

তজুমদ্দিনে অসহায়দের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন- সাদিয়া  ফাউন্ডেশন

তজুমদ্দিনে অসহায়দের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন- সাদিয়া  ফাউন্ডেশন

ধর্ষনের অভিযোগে রনি হোসেন নামে এক যুবক বিদেশে পালানোর সময় গ্রেফতার

ধর্ষনের অভিযোগে রনি হোসেন নামে এক যুবক বিদেশে পালানোর সময় গ্রেফতার